৬ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ  দুপুর ২:৩১  ১৬ই জমাদিউস-সানি, ১৪৪৩ হিজরী
২০শে জানুয়ারি, ২০২২ ইং

ফরিদগঞ্জে আ’লীগের বর্ধিত সভার প্যান্ডেল ভাংচুর, সভা পন্ড!

ফরিদগঞ্জ (চাঁদপুর) প্রতিনিধি:

চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জে আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখে বিভিন্ন ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের বর্ধিত সভা করে আসছে উপজেলা আ’লীগ। তারই ধারাবাহিকতায় পূর্বের ঘোষনা অনুযায়ী ১৭ অক্টোবর রোববার সকালে উপজেলার গোবিন্দপুর দক্ষিণ ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের তৃনমূলের বর্ধিত সভাকে সামনে রেখে ইউনিয়ন আ’লীগের নির্মিত প্যান্ডেল ভেঙ্গে ফেলেছে দুর্বৃত্তরা এবং এই পরিস্থিতিতে উপজেলা আওয়ামীলীগ উক্ত বর্ধিত সভা স্থগিত করে দিয়েছে।

গোবিন্দপুর দক্ষিন ইউনিয়ন আ’লীগের নেতা কর্মিরা জানান, ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখে ১৭ অক্টোবর রোববার এই ইউনিয়নে আওয়ামীলীগের তৃণমুলের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথাছিল। এই সভা উপলক্ষে হাঁসা আল-আমিন মাদ্রাসার মাঠে প্যান্ডেল করে ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ।

পরে সকালে ওই ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দ ও মনোনয়ন প্রত্যাশী চেয়ারম্যান প্রার্থীর কর্মী-সমর্থকরা এসে দেখে প্যান্ডেলটি কারা যেন ভেঙ্গে পেলেছে।

মনোনয়ন প্রত্যাশী ওই ইউনিয়ন আ’লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মো. আলী আক্কাছ পাটওয়ারী এবং শিক্ষা ও মানব সম্পদ বিষয়ক সম্পাদক হুমায়ুন কবির পাটওয়ারী সাংবাদিকদের জানান, ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখে ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের বর্ধিত সভা পূর্বের ঘোষিত অনুষ্ঠানের প্যান্ডেলটি ভাঙ্গার বিষয়টি দু:খজনক অ্যাখা দিয়ে দলীয় সিনিয়র নেতৃবৃন্দ এব্যাপারে তদন্ত করে দোষীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহনের জোর দাবী জানান।

মনোনয়ন প্রত্যাশী ওই ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি জহিরুল ইসলাম ভূঁইয়া বলেন, আমরা শনিবার সন্ধ্যার মধ্যেই প্যান্ডেল তৈরি করে বাড়ি চলে যাই। সকালে স্থানীয় নেতা
কর্মীরা ফোন করে জানান কারা যেন রাতের আঁধারে প্যান্ডেলটি ভেঙ্গে গুড়িয়ে দিয়েছে। আমি এই ঘটনায় জড়িতদের আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী জানাচ্ছি।

এ বিষয়ে উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আবু সাহেদ সরকার বলেন, ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখে ইতোপূর্বে আমার বিভিন্ন ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের বর্ধিত সভা করেছি। পূর্ব নির্ধারিত আজকের এই বর্ধিত সভার প্যান্ডেল কি কারনে ভাঙ্গা হয়েছে তা আমার বোধগম্য নয়। তবে যাহারা প্যান্ডেল ভেঙ্গেছে, তারা শুধু প্যান্ডেল ভাঙ্গে নাই, তারা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তার সুযোগ্য কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার ছবিও ভাংচুর করেছে। যারা এহেন কাজ করেছে তারা আ’লীগের লোক হতে পারেনা, তারা অনুপ্রবেশকারী।

এ বিষয়ে উপজেলা আ’লীগের সভাপতি ও পৌর মেয়র যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল খায়ের পাটওয়ারী জানান, স্থানীয় সংসদ সদস্যের অনুসারীরা রাতের আঁধারে প্যান্ডেল ভাংচুর করেছে বলে ধারনা করা যাচ্ছে। আমি বিষয়টি জানার পর ওসি তদন্তকে অবহিত করেছি এবং প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে বলেছি।

এ বিষয়ে ফরিদগঞ্জ থানার তদন্ত (ওসি) মো. বাহার মিয়া বলেন, আমি ঘটনাটি শুনা মাত্রই পুলিশ ফোর্স পাঠিয়ে ঘটনাস্থল পরির্দশন করেয়েছি। এই বিষয়ে এখন পর্যন্ত কোন লিখিত অভিযোগ পাইনি, অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

উল্লেখ্যঃ এ বিষয়ে উপজেলা ও ইউনিয়ন আ’লীগ নেতাকর্মীদের মাঝে ক্ষোভ বিরাজমান।