৩রা মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ  দুপুর ১:৪৩  ১৩ই জমাদিউস-সানি, ১৪৪৩ হিজরী
১৭ই জানুয়ারি, ২০২২ ইং

ফরিদগঞ্জে ইউনিয়ন পরিষদে তালা

বিভিন্ন অনিয়ম আর দুর্নীতির অযুহাতে ফরিদগঞ্জের ৮নং পাইকপাড়া(দ.) ইউনিয়ন পরিষদে তালা ঝুলিয়েছে উপজেলা যুবলীগ নেতা অপু। মঙ্গলবার (১২ অক্টোবর) দুপুরে এ ঘটনা ঘটে।

ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. শওকত বিএসসি এর নিকট জানতে চাইলে তিনি ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, ‘এটি নিতান্তই দলীয় ব্যাপার। আমি যোগাযোগ করছি বিষয়টি মিমাংসার জন্য।’

ইউনিয়ন পরিষদ সচিব মীর সিদ্দিক জানায়, ‘আনুমানিক দুপুর দেড়টায় যুবলীগ নেতা পরিষদে এসে চেয়ারম্যান মহোদয়কে না পেয়ে ক্ষিপ্ত হয় এবং উত্তেজিত হয়ে এক পর্যায়ে চেয়ারম্যান মহোদয় এবং আমার রুমে তালা ঝুলিয়ে দেয়। দ্বায়িত্বের মধ্যে থেকে আমি উপজেলা সদরে গিয়ে তাৎক্ষনিক উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মহোদয় শিউলি হরিকে বিষয়টি অবহিত করি এবং উনার নির্দেশে ইউনিয়ন পরিষদের মুল্যবান ডকুমেন্টেস্ এর নিরাপত্তার জন্য গ্রাম পুলিশ দিয়ে পাহারার ব্যবস্থা করি।’

সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে নাগাদ চেয়ারম্যান সাহেবের সাথে সমোজতার ভিত্তিতে তালা খুলে দেয় যুবলীগ নেতা মোদাস্বের শেখ অপু।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শিউলি হরি বলেন, ‘আমি তালা ঝুলানোর বিষয়টি জেনেছি এবং আমার উর্ধতন কর্তৃপক্ষ ডিডিএলজি স্যারকে এ বিষয়ে অবহীত করেছি।’

নাম প্রকাশে অনইচ্ছুক স্থানীয় বাসিন্দারা বলেন, ‘এটা সত্যি যে, চেয়ারম্যান সাহেব পরিষদের ব্যাপারে উদাসীন এবং ইউনিয়নবাসী কাঙ্খিত সেবা থেকে বঞ্চিত।’

তালা ঝুলানোর বিষয়ে অপু স্বীকার করে বলে, ‘ইউনয়িন পরিষদটি চেয়ারম্যান অকার্যকর করে তুলেছে। তিনি বসবাস করছেন চাঁদপুর শহরে। ইউনিয়নবাসীর প্রয়োজনে ঠিকমত তাকে পাওয়া যায় না। গত তিন মাস ধরে একটি জন্ম নিবন্ধনের কাগজ আদায় সম্ভব হয়নি। চাকরী সংক্রান্ত ব্যাপারে সেটি দরকার ছিল। ইন্টারভিউর মেয়াদ শেষ হলেও চেয়াম্যান সাহেবের স্বেচ্ছাচারিতা আর অনুপস্থিতির কারণে জন্মনিবন্ধন সার্টিফিকেট নিতে পারিনি। তাই তালা ঝুলিয়ে প্রতিবাদ করেছি।’