৮ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ  রাত ৯:৪২  ১৮ই জমাদিউস-সানি, ১৪৪৩ হিজরী
২২শে জানুয়ারি, ২০২২ ইং

ফরিদগঞ্জে এক সময়ের প্রবাসী জহির এবার জনপ্রতিনিধি হতে মাঠ নেমেছে

নিজস্ব সংবাদদাতা

এক সময়ের প্রবাসী বিভিন্ন অসহায়দের পাশে থেকে নানা সহযোগিতা করে আসা জহিরুল ইসলাম এবার ইউপি চেয়ারম্যান হয়ে মানুষের সেবা করতে নির্বাচনী গনসংযোগ নিয়ে মাঠে নেমেছে। জহিরের গ্রামের বাড়ি হচ্ছে ফরিদগঞ্জ উপজেলার ১৬ নং (দক্ষিন) রুপসা ইউনিয়নে। আওয়ামী লীগের


১৬ নং দক্ষিন রুপসা ইউনিয়নের সম্প্রতি অনুষ্ঠিত বর্ধিত সভায় ইউপি চেয়ারম্যান প্রার্থী জহিরুল ইসলামের নের্তৃত্বে শতশত নারী পুরুষসহ একটি মিছিল নিয়ে উক্ত বর্ধিত সভায় যোগ দিয়ে তার প্রার্থী হওয়ার বিষয়টি জানান দিয়েছেন। এ ছাড়াও তার নির্বাচনী প্রচার সহ বিভিন্ন ব্যানার ও ফেষ্টুন বিভিন্ন জায়গায় শোভা পাচ্ছে।

খোজ নিয়ে জানা গেছে,ওই ইউনিয়নের গাবেদ্গাঁও গ্রামের মোঃ চিটু বেপারীর ছেলে জহিরুল ইসলামের রাজনীতি শুরু হয় ছাত্রলীগ করে। আওয়ামীলীগের রাজনীতি করার কারনে বিগত সময়ে জহিরের বিরুদ্ধে ১৩টি মামলায় অভিযুক্ত আসামী ছিলেন। এক সময়ে জহির গ্রেফতার হয়ে জেলও খেটেছেন। এ ছাড়াও ২০০১ সালে জামাত বিএনপির জোট সরকারের আমলে ভয়ে কেউ ওই সময়ে ইউনিয়ন যুবলীগের দায়িত্ব নিতে রাজনী হয়নি। সেই দুঃসময়ে জহির যুবলীগের দায়িত্ব নিয়ে সক্রিয়ভাবে তার দলীয় কার্যক্রম চালিয়েছেন। ২০০৭ সালে জীবিকার তাগিদে জহির বিদেশে চলে। বিদেশে থেকে সে এলাকার অসহায় লোকদেরকে বিভিন্ন ভাবে সহযোগিতা করতেন। গত করনোকালিন সময়ে নিজের অর্জিত টাকায় অসহায়দের মাছে বিভিন্ন ত্রান সামগ্রী বিতরন করে সমাজ সেবায় অনন্য অবদান রেখেছে।

এ নিয়ে জহিরুল ইসলাম বলেন, আমার এই ইউনিয়নের সুবিধাবঞ্চিত মানুষের সেবার প্রত্যয় নিয়ে আমি ইউপি চেয়ারাম্যন পদে নির্বাচন করার আশা পোষন করছি।