১২ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ  বিকাল ৫:০৮  ১০ই রবিউল-আউয়াল, ১৪৪২ হিজরী
২৮শে অক্টোবর, ২০২০ ইং

ফরিদগঞ্জে পুলিশের বিরুদ্ধে অপপ্রচার ॥ আটক ছাত্রলীগ নেতাদের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা

গাজী মমিন :

ফরিদগঞ্জ থানা অফিসার ইনচার্জ আব্দুর রকিবকে নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ফেক আইডি থেকে অপপ্রচার চালানোর সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে আটক দুই ছাত্রলীগ নেতার বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা দায়ের করেছে পুলিশ।

আটককৃতরা হলো কালির বাজার কলেজ ছাত্রলীগের বিলুপ্ত কমিটির সাধারণ সম্পাদক মো. মামুন হোসেন রুবেল (২০) ও ১৪ নং ফরিদগঞ্জ দক্ষিণ ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি শাহাপরান আলম খান রাব্বী (২৫)।

বৃহস্পতিবার বিকেলে ফরিদগঞ্জ থানা পুলিশের সহযোগীতায় তাদেরকে আটক করে ডিবি পুলিশ। মামলার বাদী ফরিদগঞ্জ থানা অফিসার ইনচার্জ আব্দুর রকিব। ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে দায়েরকৃত মামলা নং ১, তারিখ ১.০৫.২০২০খ্রি। ইতোমধ্যে মামলার আসামীদের আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

এবিষয়ে উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মাহাবুব আলম সোহাগ এ প্রতিনিধিকে বলেন, ‘আটক মামুন হোসেন রুবেল ছাত্রলীগের কেউ নয় আর রাব্বী যদি অপরাধী হয়ে থাকে আমিও তার বিচার চাই, আর অপরাধী না হলে মুক্তি চাই।’

ফরিদগঞ্জ থানা পুলিশ জানায়, মামুন হোসেন খাঁন রুবেল তাদের কাছে স্বীকার করেছেন যে শাহাপরান রাব্বীর প্ররোচনায় Jarine Afrine Ruma নামে একটি ফেক আইডি থেকে ত্রাণ দেয়ার নামে ওসি এক নারীর সঙ্গে অনৈতিক কাজ করেছেন ফেসবুকে এমন একটি স্ট্যাটাস তিনি পোস্ট করেন। বুধবার (২৯ এপ্রিল) ভোর ৪টা ৭ মিনিটে তিনি নিজের মোবাইল থেকে ওই স্ট্যাটাসটি দেন।

পুলিশ জানায়, রুবেল তদন্তকারী কর্মকর্তার কাছে কাছে স্বীকারোক্তি দেয় যে, প্রকৃতপক্ষে উক্ত পোস্টে তিনি যা উল্লেখ করেছেন এমন কোন ঘটনা ঘটেনি। স্থানীয় শাহাপরান আলম খান রাব্বি (২৫), পিতা : মাহাবুব আলম খান, সাং- গজারিয়া (খান বাড়ী), থানা: ফরিদগঞ্জ, জেলা: চাঁদপুর এর প্ররোচনায় তিনি প্ররোচিত হয়ে বর্ণিত মিথ্যা তথ্যটি তার টাইমলাইনে পোস্ট করেছেন। প্রকৃতপক্ষে ফরিদগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুর রকিব ওই ঘটনার সাথে আদৌ জড়িত নয়। এমনকি পোস্টে যে ঘটনাও ব্যক্তির নাম নাম উল্লেখ করা হয়েছে তার পুরোটাই ছিলো কাল্পনিক।

মূলত বর্তমানে দেশে করোনা ভাইরাস মহামারির সময় ফরিদগঞ্জ থানা পুলিশ তথা বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনী যে মানবিক কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে তা প্রশ্নবিদ্ধ করতে ওসি আব্দুর রকিবকে হেয় প্রতিপন্ন করতে শাহাপরান আলম খান রাব্বি’র উদ্দেশ্যেমূলক প্ররোচনায় Jarine Afrine Ruma নামক ফেইসবুক আইডি হতে বর্নিত পোস্ট করেছেন বলে স্বীকার করেন তিনি। এছাড়া রুবেল তার ভুলের জন্য লজ্জিত এবং ক্ষমাপ্রার্থনা করেছেন।

এ বিষয়ে ফরিদগঞ্জ থানা অফিসার ইনচার্জ আব্দুর রকিব এ প্রতিনিধিকে বলেন, ফেসবুকে ফেক আইডির মাধ্যমে আমার বিরুদ্ধে মিথ্যাচার করা হয়েছে। এছাড়া, বিষয়টি উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ গুরুত্ব দিয়ে দেখছেন জানিয়ে অফিসার ইনচার্জ জানান, অপরাধীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এদিকে, সংগঠনের শৃঙ্খলাভঙ্গের অভিযোগে দেড় বছর আগেই মো. মামুন হোসেন রুবেলকে ছাত্রলীগ থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে বলে এ প্রতিনিধিকে জানিয়েছেন ফরিদগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মাহবুব আলম সোহাগ। সোহাগ বলেন, রুবেল ছাত্রলীগের কেউ না। আর রাব্বী যদি অপরাধী হয়ে থাকে আমিও তার বিচার চাই আর অপরাধী না হলে মুক্তি চাই। তবে আনিত অভিযোগ প্রমানিত হলে ছাত্রলীগের গঠনতন্ত্র অনুযায়ী সাংগঠনিকভাবে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানান তিনি।

এদিকে, করোনা পরিস্থিতিতে সম্প্রতি ফরিদগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগের প্রশংসনীয় যে ভূমিকা ছিলো স্বাধীনতা বিরোধী একটি চক্র তা নৎসাৎ করার জন্য উঠে পড়ে লেগেছে বলে অভিযোগ করেন মাহাবুব আলম সোহাগ। এতে স্বাধীনতা বিরোধীদের সাথে নিজ দলীয় কিছু লোক ঘোলা পানিতে মাছ শিকারের চেষ্টা চালাচ্ছে বলে অভিযোগ করেন তিনি।

এদিকে, ফরিদগঞ্জ থানা অফিসার ইনচার্জ আব্দুর রকিবের বিরুদ্ধে ফেসবুকের ফেক আইডি দিয়ে অপপ্রচারকারীদের বিচারের দাবিতে সরব ছিলো সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহারকারীরা।