১০ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ  রাত ৪:৫৭  ৭ই রবিউল-আউয়াল, ১৪৪২ হিজরী
২৬শে অক্টোবর, ২০২০ ইং

সকল মন্ত্রণালয় খোলার নির্দেশ স্বাস্থ্যবিধি মেনে

করোনাভাইরাসের সংক্রমণের ঝুঁকি থাকা সত্ত্বেও এবার স্বাস্থ্যবিধি মেনে সব মন্ত্রণালয় ও বিভাগ প্রয়োজন অনুসারে খোলার নির্দেশ দিয়েছে সরকার। আজ বৃহস্পতিবার ১৫ মে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে এ সংক্রান্ত নির্দেশনা দিয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে।

সেখানে বলা হয়, সাধারণ ছুটি চলাকালীন শর্তসাপেক্ষে সব মন্ত্রণালয় ও বিভাগ তাদের নিয়ন্ত্রণাধীন অফিসসমূহ প্রয়োজন অনুসারে খোলা রাখতে পারবে। এক্ষেত্রে করোনার সংক্রমণ এড়িয়ে কীভাবে অধিক্ষেত্রের কার্যাবলী পরিচালনা করা যায়, সে সম্পর্কে সুনির্দিষ্ট নির্দেশনা জারি করবে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ।

পাশাপাশি মন্ত্রণালয় এবং তার আওতাধীন অফিসসমূহের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত করতে স্বাস্থ্যসেবা বিভাগ থেকে জারি করা ১৩ দফা নির্দেশনা কঠোরভাবে মেনে চলতে হবে।

এদিকে দেশব্যাপী চলমান সাধারণ ছুটি সপ্তম দফায় বাড়ানো হয়েছে। আজ দুপুরে এ নিয়ে একটি প্রজ্ঞাপন জারি করেছে সরকার। এ দফায় নতুন করে ১৪ দিন যোগ হওয়ায় ছুটি গিয়ে ঠেকল ৩০ মে পর্যন্ত। তবে এ ১৪ দিনের মধ্যে আছে শবে কদর, ঈদুল ফিতর ও চার দিনের সাপ্তাহিক ছুটি।

মূলত: ছুটি থাকবে ২৮ মে পর্যন্ত। ২৯ ও ৩০ তারিখ যথাক্রমে শুক্র ও শনিবার হওয়ায় সে দুদিনও ছুটির সঙ্গে যোগ হয়ে গেছে। এর মধ্যে ২১ মে শবে কদরের সরকারি ছুটি। ২২ ও ২৩ তারিখ (শুক্র ও শনিবার) সাপ্তাহিক ছুটি। ঈদুল ফিতরের ছুটি আছে ২৪, ২৫ ও ২৬ মে। সবমিলিয়ে ১৪ দিন পর ৩০ মে খুলতে পারে অফিস-আদালত।

দেশে করোনাভাইরাসের বিস্তার রোধে প্রথমবারের মতো সাধারণ ছুটি ঘোষণা করা হয় ২৬ মার্চ থেকে ৪ এপ্রিল পর্যন্ত। পরিস্থিতির উন্নতি না হওয়ায় এরপর তা বাড়ানো হয় ১১ এপ্রিল পর্যন্ত।

তৃতীয় দফায় বাড়ে ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত। চতুর্থ দফায় ২৫ এপ্রিল পর্যন্ত। এরপর ৫ মে পর্যন্ত সাধারণ ছুটি বাড়ানো হয়েছিল পঞ্চম দফায়। এভাবে ৬ষ্ঠ দফায় বাড়ে ১৬ মে পর্যন্ত। এখন তা বর্ধিত করা হলো ৩০ মে পর্যন্ত।