৮ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ  রাত ৮:০৪  ৬ই রবিউল-আউয়াল, ১৪৪২ হিজরী
২৪শে অক্টোবর, ২০২০ ইং

ফরিদগঞ্জে গনমানুষের চলাচলের রাস্তা বন্ধ, রাতের আধাঁরে বসত ঘরে হামলা ও লুটপাটের অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিনিধি:

ফরিদগঞ্জে ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসী এনে ইটের দেয়াল নির্মাণ করে গনমানুষের চলাচলের রাস্তা বন্ধ করে দিয়েছে একদল সন্ত্রাসী। শুধু তাই নয়, নিজের বসত বাড়ির রান্না ঘরটিও তুলে নিয়ে চলাচলের রাস্তায় মাঝপথে বসিয়ে দেয়ায় মানুষের চলাচল সম্পূর্ন বন্ধ হয়ে গেছে।

এ ছাড়া ওই সন্ত্রাসীরা দিনে রাস্তা বন্ধ করে রাতে হতদরিদ্রের বসত ঘরে হামলা ও লুটপাট করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে সোমবার ফরিদগঞ্জ পৌর সভার পূর্ব বড়ালী গ্রামের মৃত শাহাজার গাজীর ছেলে আনোয়ার গাজীর বসত বাড়িতে।

এ ঘটনার সংবাদ শুনে ফরিদগঞ্জের পৌর মেয়র মাহফুজুল হক ২ জুন মঙ্গলবার দুপুরে ন্যাক্কারজনক উক্ত ঘটনার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে বলেন, অবিলম্বে দোষীদের আইনের আওতায় এনে দ্রুত বিচারের দাবী জানান। এ ছাড়া উক্ত ঘটনাটির বিষয়ে মেয়র মাহফুজুল হক এলাকার এমপি মহোদয় শফিকুর রহমানকে অবগত করেছেন বলে তিনি নিশ্চিত করেছেন।

এলাকাবাসী ও ভুক্তভোগী পরিবারের সদস্যরা জানায়, আনোয়ারের বাড়ির সকল বাসিন্দাদের চলা-চলের জন্য একটি রাস্তা নির্মানকে কেন্দ্র করে বাড়ীর সকল বাসিন্দারা একজোট হয়ে রাস্তা নির্মানের চেষ্টা করলে মাসুদ ও তার ছোট ভাই জহির মিলে প্রথমে বাধা দেয়। পরে এ বিষয়ে সুরাহা পেতে প্রথমে বাড়ির লোকদের চলাচলের স্বার্থে আনোয়ারের পক্ষ থেকে থানায় অভিযোগ দেয়া হয়। পরবর্তিতে বাড়ীর দুই পক্ষের মতামতের ভিত্তিতে সমজোতার জন্য সালিশী বৈঠকের দিনক্ষন ঠিক করা হয়। কিন্তু সমঝতা এই বৈঠকের আগেই জহির ও মাসুদ মিলে সোমবার দিন ব্যাপি ভাড়াটে সন্ত্রসী এনে উক্ত রাস্তার উপর নতুন দেয়াল নির্মান করে।

থানায় দায়ের করা অভিযোগে উল্লেখ করা হয়েছে যে, হামলাকারীরা রাতের আধাঁরে আনোয়ারের বসত ঘরের ভিতরে ঢুকিয়া তার ব্যবসার কাজে ঘরে রক্ষিত নগদ ৮০ হাজার টাকা, ও স্বর্নালংকার প্রায় দেড় ভরি স্বর্ণালংকার লুটপাট করে নিয়ে যায়। এ সময় আনোয়ারের বসত ঘরের বেড়াটিন এলোপাতাড়ি কুপিয়ে ক্ষত বিক্ষত করে যায়। এর আগে এক পর্যায়ে ঘরের ভেতরে ঢুকে আনোয়ারকে তুলে নিতে চেষ্টা করলে ডাকচিৎকার শুনে এলাকাবাসী দৌড়ে এগিয়ে এলে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়।

উক্ত ঘটনায় আনোয়ার হোসেন বাদী হয়ে মাসুদ গাজী ও তারই ভাই মার্কেন্টাইল ব্যাংকে চাকুরীজীবি জহির গাজী সহ ৪ জনের নাম উল্লেখ করে অঙ্গাত আরো ১০/১২ জনের বিরুদ্ধে মংগলবার ফরিদগঞ্জ থানায় একটি এজাহার দায়ের করা হয়েছে। পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।

এদিকে মাসুদ গাজী ও জহির গাজী জানান,আমাদের ফাঁসাতে আনোয়ারের বসত ঘরে রাতে হামলা ঘটনাটি সম্পূর্ন তাদের সাজানো নাটক মাত্র। আমাদের জায়গা দিয়ে চলাচলের রাস্তা নিতে হলোতো তারা আমাদের সাথে সমজোতা করেই নিতে হবে। কিন্তু তা না করে তারা বাড়ির লোকজন মিলেমিশে আমাদের জায়গায় থাকা টিনের ভেড়া ভেংগে চলাচলের রাস্তা বের করেছে।

তবে এ নিয়ে একাধিক সুত্র জানায়, ব্যাংকার জহিরের সহযোগিতায় সরকারী দলের প্রভাবশালী এক নেতার পরোক্ষ ইন্ধনে একদল অশ্রধারী সোমবার উক্ত ঘটনা নিয়ে পূর্বে বড়ালী গ্রামের আনোয়ারের বাড়িতে দিনব্যাপী এক ত্রাসের রাজত্ব সৃষ্টি করে। যা দেখে গ্রামবাসী দীর্ঘক্ষন আতংকে থাকতে বাধ্য হয়েছে।

এ নিয়ে পৌর মেয়র মাহফুজুল হক ও স্থানীয় ওয়ার্ড কমিশনার আবদুল মান্নান পরান ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, পৌর এলাকার বাহিরে থেকে সন্ত্রাসী ভাড়ায় এনে যে সকল অশ্রধারীরা মানুষের চলাচলে রাস্তা বন্ধ করে দিয়েছে। অবিলম্বে তাদের বিচার দাবি করেছে এ দুই জনপ্রতিনিধি।

এ বিষয়ে থানার অফিসার ইনচার্জ আবদুর রকিব জানান, বসত ঘরে হামলা ও জনসাধারনের চলাচলের রাস্তা বন্ধকরে দেওয়ার অভিযোগ পেয়েছি। আমাদের পুলিশ ঘঁনাস্থল পরিদর্শন করেছে। অভিযোগের বিত্তিতে তদন্ত চলছে তদন্ত শেষে প্রয়োজনিয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।