১৩ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ  সকাল ১০:১৮  ১১ই রবিউল-আউয়াল, ১৪৪২ হিজরী
২৯শে অক্টোবর, ২০২০ ইং

ফরিদগঞ্জ পৌর এলাকার রাস্তা থেকে পনি সরানোর চেস্টায় তিন শিশু

নিজস্ব প্রতিনিধি:

ফরিদগঞ্জের পৌরসভা এলাকার ৪ নং ওয়ার্ডের পূর্ব বড়ালী গ্রামের মিজি বাড়ির পাশের জনবান্ধব রাস্তাটি যেন মরণ ফাঁদে পরিনত হয়েছে, সওয়াবের আশায় সেচ্ছায় কাজ করতে দেখা যায় তিন শিশুকে।

সরেজমিনে দেখা যায়, রাস্তাটির এক পাশে কবরস্থান আরেক পাশে পুকুর রয়েছে। পুকুর অংশে ভাঙ্গন ধরে প্রায় দেড় ফিটের মত নষ্ট হয়েছে। শুধু তাই নয় পুকুরের পাশের অংশে অনেক গভীর ভাবে ভাঙ্গন ধরে যানবাহন ও মানুষ চলাচলের হুমকি হয়ে দাঁড়িয়েছে। একই স্থানে রাস্তার পাশে একটির কবরস্থান রয়েছে। ওই কবরস্থানে প্রায় হাটু পরিমান বর্ষার পানি জমেছে। এমনকি কবরস্থানে জমানো পানির অনেক অংশ রাস্তাটির উপর থাকার কারনে বিভিন্ন যানবাহন চলাচল করার সময় পানির ডেউয়ের কারনে রাস্তাটির বাকি অংশ এখন নষ্ট হয়ে প্রায় রাস্তার এই স্থানটি এখন মরণ ফাঁদে পরিনত হয়েছে। প্রতিদিনই ছোট বড় দূর্ঘটনার সৃষ্টি হচ্ছে বলে জানিয়েছে স্থানীয় লোকজন।

স্থানীয় বাসীন্ধা সফিকুর রহমান লাবলু ও তানবির আহম্মেদসহ বেশ কয়েক জন বলেন, এলাকার দায়িত্বশীলদের এই বিষয়ে অবগত করলেও সবাই শুধু আসার বানী শোনাচ্ছেন। কাজের কাজ কিছুই হয়নি। খুব শিঘ্রই যদি রাস্তাটি মেরামত না করা হয়, যে কোন সময় অনেক বড় দরনের দূর্ঘটনার আশংকা রয়েছে।

এ দিকে দেখা যায়, রাস্তার এই এ দুর্দশা দেখে ওই গ্রামের সহপাটি হিমেল, নুর হোসেন, নাজমুল ওরা তিনজন জন ক্ষুদে শিশু মিলে রাস্তার বিভিন্ন স্থান থেকে কংক্রিট সংগ্রহ করে রাস্তা টি মেরামত করতে দেখা যায়। শিশুদের সাথে কথা হলে তারা জানান, রাস্তাটি অনেক খারাপ, তাই দেখে আমরা সওয়াবের জন্য কাজ করছি।

এই বিষয়ে ফরিদগঞ্জ পৌর প্যানেল মেয়র-০১ ও স্থানীয় ওয়ার্ড কমিশনার আব্দুল মান্নান পরানের সাথে কথা হলে তিনি জানান, রাস্তাটির পাশেই যে কবরস্থান রয়েছে, তা থেকে পানি নিস্কাসনের ব্যবস্থা না থাকায় বৃষ্টি হলেই পানি ভরাট হয়ে যায়। অপর পাশে যে পুকুর রয়েছে পুকুরের পাশর্ববর্তি অংশ অনেক মারাত্বক ঝুকিতে রয়েছে। খুব শিঘ্রই রাস্তাটি স্থায়ী সমাধান করবেন বলে তিনি জানিয়েছেন।