২১শে শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ  সন্ধ্যা ৭:০২  ২৫শে জিলহজ্জ, ১৪৪২ হিজরী
৫ই আগস্ট, ২০২১ ইং

অনুমতি ছাড়া সরকারি কর্মচারীদের গণমাধ্যমে কথা বলা যাবে না

কোনো সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারী বিভাগীয় প্রধানের অনুমতি ছাড়া গণমাধ্যমে কথা বলতে পারবেন না কিংবা কোনো নিবন্ধ প্রকাশ করতে পারবেন না বলে নির্দেশনা দিয়েছে সরকার।

সরকারি কর্মচারী (আচরণ) বিধিমালা, ১৯৭৯’এর এমন নিয়ম মনে করিয়ে দিয়ে তা মানার জন্য প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দিতে সব মন্ত্রণালয়ের সচিব/সিনিয়র সচিবদের গত ১৮ আগস্ট চিঠি পাঠিয়েছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়।
চিঠিতে বলা হয়েছে, ‘সরকারি কর্মচারী (আচরণ) বিধিমালা, ১৯৭৯’এর বিধি ২২ এর ব্যত্যয় ঘটিয়ে কোনো কোনো সরকারি কর্মচারী বিভাগীয় প্রধানের পূর্বানুমোদন ছাড়া কিংবা প্রকৃত দায়িত্ব পালনের ক্ষেত্র ছাড়া বিভিন্ন বিষয়ে গণমাধ্যম যথা— বেতার, বাংলাদেশ টেলিভিশন, বিভিন্ন বেসরকারি চ্যানেলের সংবাদ, টকশো, আলোচনা অনুষ্ঠান, পত্র-পত্রিকা বা অনলাইন মাধ্যমে বক্তব্য বা মতামত বা নিবন্ধ বা পত্র প্রকাশ করছেন। সরকারের নীতি-নির্ধারণী অনেক বিষয়ে তারা বক্তব্য বা মতামত প্রদান করছেন।

ওই চিঠিতে বেতার টেলিভিশন সম্প্রচারে অংশগ্রহণ এবং সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে যোগাযোগের ক্ষেত্রে ‘সরকারি কর্মচারী (আচরণ) বিধিমালা, ১৯৭৯’এর বিধি-২২ এর বিধান তুলে ধরা হয়েছে।

তবে যদি এই সম্প্রচার নিবন্ধ বা পত্র সম্পূর্ণরূপে শিল্প-সাহিত্যধর্মী অথবা বিজ্ঞানভিত্তিক অথবা ক্রীড়া সম্পর্কিত হয় তবে পূর্বানুমোদনের প্রয়োজন হবে না। একই সঙ্গে এই সম্প্রচার বা অংশগ্রহণ বিভাগের কমিশনার অথবা জেলা প্রশাসক অথবা উপজেলা নির্বাহী অফিসার কর্তৃক সরকারের উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ড সম্পর্কে জনগণকে অবহিত করার উদ্দেশ্যে হয় তবে বিভাগীয় প্রধানের পূর্বানুমোদনের প্রয়োজন হবে না বলে বিধিমালায় উল্লেখ রয়েছে।

জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের চিঠিতে এসব বিষয় উল্লেখ করে ‘সরকারি কর্মচারী (আচরণ) বিধিমালা, ১৯৭৯’ এর বিধি-২২ অনুসরণ করার জন্য মন্ত্রণালয় ও বিভাগ এবং অধীন অধিদপ্তর/পরিদপ্তর/দপ্তর/সংস্থার কর্মচারীদের প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দেওয়ার জন্য সচিবদের অনুরোধ জানানো হয়েছে।