১৩ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ  সকাল ১০:৫৬  ১১ই রবিউল-আউয়াল, ১৪৪২ হিজরী
২৯শে অক্টোবর, ২০২০ ইং

বিশ্বে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় সর্বোচ্চ শনাক্তের রেকর্ড ভারতে

নিজস্ব প্রতিনিধি:

কোভিড-১৯ টেস্ট বাড়ানোয় সংক্রমণ শনাক্ত বেড়েছে ভারতে। দেশটিতে একদিনের সর্বোচ্চ ৮৩ হাজারেরও বেশি মানুষ আক্রান্তের রেকর্ড হয়েছে দেশটিতে। ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বের একক কোনো দেশে এত সংখ্যক মানুষ আক্রান্ত হওয়ার এটিই প্রথম রেকর্ড।

এই প্রথম বুধবার এক দিনে ১১ লাখেরও বেশি টেস্ট করানো হয়েছে ভারতে।

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের পরিসংখ্যান বলছে, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে ৮৩ হাজার ৮৮৩ জন নতুন করে কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত হয়েছেন। এর ফলে দেশটিতে মোট আক্রান্ত হলেন ৩৮ লাখ ৫৩ হাজার ৪০৬ জন। এই সময়ে যুক্তরাষ্ট্র ও ব্রাজিলে নতুন আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছেন যথাক্রমে ৩৯ হাজার ৫৫৩ ও ৪৬ হাজার ৯৩৪ জন। এই ধারা গত ১৫-১৬ দিন ধরেই অব্যাহত ভারতে। আক্রান্তের দিক থেকে বিশ্বে প্রথম স্থানে থাকা যুক্তরাষ্ট্রে এখনও পর্যন্ত মোট আক্রান্ত ৬১ লাখ ১৩ হাজার ও দ্বিতীয় স্থানে থাকা ব্রাজিলে ৩৯ লাখ ৯৭ হাজার।

চিকিৎসকদের আশঙ্কা, এভাবে বাড়তে থাকলে আগামী কয়েক দিনের মধ্যেই ব্রাজিলকে পিছনে ফেলে সংক্রমণের নিরিখে বিশ্বের দ্বিতীয় স্থানে চলে আসবে ভারত।

আক্রান্তের সংখ্যা যেমন রোজ বাড়ছে, তেমনই বহু মানুষ সুস্থও হয়ে উঠছেন। এখনও পর্যন্ত মোট ২৯ লক্ষ ৭০ হাজার ৪৯২ জন করোনার কবল থেকে মুক্ত হয়েছেন। অর্থাৎ দেশে মোট আক্রান্তের ৭৭ শতাংশ সুস্থ হয়েছেন। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ৬৮ হাজার ৫৮৪ জন।

মৃত্যুর সংখ্যায় স্পেন, ফ্রান্স, ইতালি, ব্রিটেনের মতো দেশকে ভারত পিছনে ফেলেছিল আগেই। সম্প্রতি মেক্সিকোকে পিছনে ফেলে মৃত্যুর নিরিখে বিশ্বের তৃতীয় স্থানে উঠে এসেছে ভারত। তবে যুক্তরাষ্ট্র ও ব্রাজিলের তুলনায় ভারতে মোট মৃত্যু অনেক কম। পাশাপাশি ওই সব দেশগুলির তুলনায় ভারতে মৃত্যুর হারও অনেকটাই কম।

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রণালয়ের পরিসংখ্যান অনুসারে, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনার জেরে মৃত্যু হয়েছে ১ হাজার ৪৩ জনের। এ নিয়ে দেশে মোট ৬৭ হাজার ৩৭৬ জনের প্রাণ কাড়ল করোনাভাইরাস।

এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি মৃত্যু মহারাষ্ট্রে, সেখানে মারা গেছেন ২৫ হাজারের বেশি মানুষ। দ্বিতীয় স্থানে থাকা তামিলনাড়ুতে মোট মৃত সাড়ে সাত হাজার ছাড়িয়েছে। তৃতীয় স্থানে থাকা কর্নাটকে মৃতের সংখ্যা ৬ হাজার ছুঁইছুঁই। দিল্লিতে মারা গেছেন ৪ হাজার ৪৮১। অন্ধ্রপ্রদেশ ৪,১২৫, উত্তরপ্রদেশ ৩,৬১৬, পশ্চিমবঙ্গ ৩,৩৩৯, গুজরাটে মারা গেছেন ৩,০৪৬ জন।