১০ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ  রাত ১:০৭  ৭ই রবিউল-আউয়াল, ১৪৪২ হিজরী
২৬শে অক্টোবর, ২০২০ ইং

চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি শাহ্ মাকসুদুল আলম আর নেই

নিজস্ব প্রতিনিধি:

চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি শাহ্ মোহাম্মদ মাকসুদুল আলম আর বেঁচে নেই। (ইন্নালিল্লাহি…রাজিউন)। দীর্ঘদিন অসুস্থ থাকার পর ২৮ সেপ্টেম্বর, সোমবার সকাল ৯টায় তিনি নিজ বাড়িতে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।

পরিবার সূত্রে জানা যায়, আজ বাদ আসর তালতলাস্থ করিম পাটওয়ারী বাড়ি জামে মসজিদ প্রাঙ্গণে তার জানাজা অনুষ্ঠিত হবে।

শাহ মোহাম্মদ মাকসুদুল আলম ১৯৬৮ সালের ১০ মে চাঁদপুর শহরের তালতলায় জন্মগ্রহন করেন। তার বাবা মরহুম শাহ মোহাম্মদ হাছান (বাচ্চু মিয়া) । তিনি পেশায় একজন শিক্ষক ছিলেন। মাকসুদ ছাত্রাবস্থা থেকেই সাংবাদিকতায় পেশায় জড়িত। তিনি সাংবাদিকতার উপর দেশে ও বিদেশে বেশ কয়েকটি প্রশিক্ষন লাভ করেছেন।

২০০০ সালে তার সম্পাদনায় প্রথম ‘দৈনিক চাঁদপুর প্রবাহ’ প্রকাশিত হয়। এরপর তিনি ‘দৈনিক আমার চাঁদপুর’ পত্রিকা প্রকাশ করে প্রকাশক ও সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন। তিনি দীর্ঘদিন ধরে দেশের সবচাইতে পুরোনো জাতীয় বাংলা দৈনিক ‘দৈনিক সংবাদ’ পত্রিকার চাঁদপুরস্থ স্টাফ হিসেবে কাজ করে ও যমুনা টেলিভিসনের জেলা প্রতিনিধি হিসেবে কর্মরক ছিলেন।

টানা ৮ বছর একুশে টেলিভিশনের চাঁদপুরস্থ স্টাফ রিপোর্টার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

তিনি সরকারি ও বেসরকারিভাবে ভারত ও মিয়ানমার সফর করেছেন। একজন ভালো বক্তা হিসেবেও তার স্বীকৃতি রয়েছে।

১৯৮৩ সালে ঢাকায় জাতীয় পর্যায়ে অনুষ্ঠিত উপস্থিত বক্তৃতায় প্রথম হয়ে তৎকালীন কুমিল্লা জেলা প্রশাসনের দেয়া সংবর্ধনা ও স্বর্ণপদক লাভ করেন। ছোট গল্প, একাংকিকা লিখেও তিনি সরকারিভাবে বহু পুরস্কার লাভ করেছেন। তার অসংখ্য লেখা বিভিন্ন জাতীয় ও স্থানীয় দৈনিক পত্রিকায় প্রকাশিত হয়েছে।

তিনি একুশে টেলিভিশনের বেশ কয়েকটি টক শো জাতীয় অনুষ্ঠানে অংশ নিয়েছেন। মাকসুদ দেশ ও বিদেশের বহু খ্যাতিমান সাংবাদিক, লেখক, কবি, রাজনীতিক, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্বের সাক্ষাতকার গ্রহন করেছেন।

শাহ্ মোহাম্মদ মাকসুদুল আলমের মুত্যুতে পরিবারের প্রতি গভীর শোক সমবেদনা ও মরহুমের রুহের মাগফেরাত কামনা করেছেন প্রেসক্লাব ফরিদগঞ্জের সভাপতি এমকে মানিক পাঠানসহ নেতৃবৃন্দ।