৫ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ  রাত ৯:২০  ৩রা রবিউল-আউয়াল, ১৪৪২ হিজরী
২১শে অক্টোবর, ২০২০ ইং

অর্ধেক মানুষই রাজধানীতে করোনায় আক্রান্ত!

ডেস্ক রিপোট:

রাজধানীর অর্ধেক মানুষই করোনায় আক্রান্ত বলে এক গবেষণায় দাবি করা হয়েছে। এতে আরো বলা হয়েছে, এ বছরের মার্চ নয়, ফেব্রুয়ারির মাঝামাঝি সময়েই দেশে শুরু হয়েছিল করোনার সংক্রমণ।

রাজধানীতে করোনা সংক্রমণ সংক্রান্ত এক গবেষণার তথ্য উপস্থাপন অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন আইইডিসিআরের সাবেক পরিচালক ও স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা।

রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউট (আইইডিসিআর) ও আন্তর্জাতিক উদরাময় গবেষণা কেন্দ্র, বাংলাদেশ (আইসিডিডিআর,বি) যৌথ গবেষণার মাধ্যমে আজ সোমবার এই তথ্য জানিয়েছে।

দেশে করোনা পরিস্থিতি ও জিন রূপান্তর নিয়ে রাজধানীর একটি হোটেলে গবেষণার তথ্য উপস্থাপন করে প্রতিষ্ঠান দুটি। অ্যান্টিবডি টেস্টের মাধ্যমে এই গবেষণা করা হয় বলে জানায় তারা।

আক্রান্তদের মধ্যে ২৪ শতাংশই ষাটোর্ধ্ব বলে গবেষণায় দাবি করা হয়েছে। এতে দেখা যায়, রাজধানীর বস্তি এলাকার তিন-চতুর্থাংশ মানুষই করোনা আক্রান্ত হয়েছে। করোনায় আক্রান্তদের ৪৫ শতাংশের কোনো লক্ষণই ছিল না বলেও তথ্য পাওয়া যায়। গবেষণার জন্য রাজধানীর ২৫টি ওয়ার্ডে জরিপ চালানো হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহেদ মালেক। সভাপতিত্ব করেন আইইডিসিআরের সাবেক পরিচালক ও স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক বলেন, ‘বাংলাদেশের প্রতিটি মানুষের স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলার নিয়ম যদি না মানতে পারি তাহলে করোনা নিয়ন্ত্রণ আমাদের জন্য কষ্টসাধ্য হবে। যদি করোনামুক্ত থাকতে চাই তাহলে আমাদের মাস্কটা পরতেই হবে। এর কোনো বিকল্প নেই। এবং এর পাশাপাশি যদি সামাজিক দূরত্ব মেনে চলি ও সাবান দিয়ে বারবার হাত ধৌত করি, তাহলে নিজেদের রক্ষা করতে পারব।