১৪ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ  দুপুর ১:৩৮  ১৩ই রবিউস-সানি, ১৪৪২ হিজরী
২৯শে নভেম্বর, ২০২০ ইং

চাঁদপুরে বঙ্গবন্ধু জাতীয় যুব দিবসের আলোচনা

নিজস্ব প্রতিনিধি:

সারা দেশে বর্ণাঢ্য কর্মসূচির মধ্য দিয়ে দিবসটি পালনের উদ্যোগ নিয়েছে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়। দেশের প্রতিটি জেলা ও উপজেলাতে জাতীয় যুব দিবস উদযাপনে নানা কর্মসূচির আয়োজন করা হয়েছে।

এ বছরের প্রতিপাদ্য বিষয় হলো-`মুজিব বর্ষে আহবান;যুব কর্মসংস্থান’এ বিষয় নিয়েই ২০২০-২১ মুজিব বর্ষে পালিত হবে। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ার লক্ষ্যে যুবসমাজের সৃজনশীলতা, আত্মপ্রত্যয় ও তাদের কর্মস্পৃহার প্রতি আস্থা রেখে এ বছর জাতীয় যুব দিবসের প্রতিপাদ্য নির্ধারণ করা হয়েছে।

জাতীয় যুব দিবস উপলক্ষে রোবাবার ১ নভেম্বর সকাল ১০ টায় গণভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ বছরের বঙ্গবন্ধু জাতীয় যুব দিবসের উদ্বোধন করেন। এর পর পরই চাঁদপুর যুব উন্নয়ন কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন চাঁদপুরের মান্যবর জেলা প্রশাসক মাজেদুর রহমান খান । বিশেষ অতিথি ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক ( সার্বিক) আব্দুল্লাহ-আল-মাহমুদ জামান এবং অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সদর (সার্কেল) স্নিগ্ধা সরকার ।

চাঁদপুরের যুব উন্নয়ন বিভাগের উপ-পরিচালক মোহাম্মদ শামসুর জামানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত যুব উন্নয়ন কার্যালযে আলোচনা সভা, স্মরণিকার মোড়ক উন্মোচন, চেক বিতরণ, খেলাধুলা বিষয়ক পুরস্কার, বৃক্ষরোপণ ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয় । অনুস্ঠান পরিচালনা করেন উপজেলা (সদর) কর্মকর্তা মো.মনির হোসেন।

অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের চাঁদপুরের প্রোগ্রাম সমন্বয়ক মো.রেজাউল করিম,সহকারী পরিচালক একেএম দিদারুল আলম, উদ্যোক্তা আবদুল মতিন,এমএ হানিফ,প্রশিক্ষণার্থী সংগঠনের সভাপতি শেখ মহিউদ্দিন। অনুষ্ঠান শেষে চাঁদপুর সদরের ১৪ জনকে ৭ লাখ টাকার চেক প্রদান ,পুরস্কার , বিভিন্ন প্রশিক্ষণার্থীদের মাঝে সনদ বিতরণ করা হয় ।

এর আগে বৃহস্পতিবার ২৯ অক্টোবর সচিবালয়ে বঙ্গবন্ধু যুব দিবস উপলক্ষে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ তথ্য জানান। সংবাদ সম্মেলনে যুব ও ক্রীড়া সচিব মো.আখতার হোসেনসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী বলেন,`জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকীতে এবছর ১ নভেম্বর জাতীয় যুব দিবসের নামকরণ করা হয়েছে ‘বঙ্গবন্ধু জাতীয় যুব দিবস, ২০২০।

যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী বলেন,‘বর্তমান সরকারের যুগোপযোগী দিক নির্দেশনার আলোকে চলমান প্রাতিষ্ঠানিক ও অপ্রাতিষ্ঠানিক প্রশিক্ষণ ট্রেডের পাশাপাশি প্রতিনিয়ত নতুন ট্রেড প্রশিক্ষণ কার্যক্রমে অন্তর্ভুক্ত করে যুবদের দেশে ও বিদেশে কর্মসংস্থানের জন্য দক্ষ মানবসম্পদ তৈরিতে যুব উন্নয়ন অধিদফতর গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখছে।

২৯ অক্টোবর সচিবালয়ে বঙ্গবন্ধু যুব দিবস উপলক্ষে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ তথ্য জানান। ‘মুজিব বর্ষ উপলক্ষে ২ লাখ প্রশিক্ষিত যুবকের কর্মসংস্থানের লক্ষ্যে ঋণ বিতরণের পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। এ ঋণের পরিমাণ হবে ২০ হাজার থেকে ৫ লাখ টাকা পর্যন্ত। ঋণ পরিশোধের মেয়াদ সর্বোচ্চ ৫ বছর। এ পর্যন্ত ৩৭টি জেলার ১২৮টি উপজেলায় ন্যাশনাল সার্ভিস কর্মসূচির আওতায় ২ লাখ ৩০ হাজার ৪৬৪ জনকে প্রশিক্ষণ এবং ২ লাখ ২৮ হাজার ১২৯ জনের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করা হয়েছে।