৩০শে চৈত্র, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ  সন্ধ্যা ৭:২৬  ৩০শে শাবান, ১৪৪২ হিজরী
১৩ই এপ্রিল, ২০২১ ইং

কচুয়ায় ভাবির সঙ্গে স্বামীর পরকীয়া দেখায় জীবন গেল অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীর

চাঁদপুরে কচুয়া পৌরসভা সংলগ্ন করইশ গ্রামের পূর্বপাড়া আলী আহম্মদ ক্বারী বাড়ির ইলিয়াছের ছেলে নাছির উদ্দিন (৩০) এর বসতঘরে বুধবার রাতে ঝুলন্ত অবস্থায় ৩ মাসের অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী সীমা আক্তারকে (২১) উদ্ধার করেছে পুলিশ।

এ ব্যাপারে সীমা আক্তারের মা বিলকিছ আক্তার বাদী হয়ে কচুয়া থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। মামলা নং-১৮ তাং- ১৮.০২.২০২১।

মামলা সূত্রে জানা যায়, নাছির উদ্দিন ও তার বড় ভাইয়ের স্ত্রী খালেদা বেগম (৩০) তারা দুজন পরকীয়া প্রেমের আসক্তিতে সীমা দেখতে পেয়ে প্রতিবাদ করলে তাকে মারধর,কিল-ঘুষিসহ শ্বাসরোধ করে মেরে গলায় রশি বেঁধে ঘরের আড়ার সাথে ঝুলিয়ে রাখে।

সীমার মৃত্যুর সংবাদ পেয়ে মামলার বাদিনীর ছোট ভাই সফিক ঘটনাস্থলে ছুটে এসে দেখতে পায় ভাগ্নীর হাটু বাঁকা অবস্থায় ঝুলন্ত লাশ। সফিক এ অবস্থা দেখে পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে সীমার মৃতদেহ উদ্ধার করে ১৮ ফেব্রুয়ারি বৃহস্পতিবার ময়নাতদন্তের জন্য চাঁদপুর মর্গে প্রেরণ করে।

অভিযোগে আরও উল্লেখ, প্রায় ২ বছর পূর্বে নাছির উদ্দিনের সাথে সীমার বিবাহ হয়। এর আগেও নাছির উদ্দিন আরেকটি বিয়ে করেছিলো। সীমার সাথে বিয়ের পর নাছির উদ্দিন ওই বড় ভাইয়ের স্ত্রীর সাথে পরকীয়া প্রেমে আসক্ত ছিলো। সীমা দফায় দফায় প্রতিবাদ করলে তাকে নির্যাতন করে আসছিলো। পুলিশ নাছির উদ্দিন ও তার বড় ভাইয়ের স্ত্রী খালেদা বেগমকে গ্রেফতার করে চাঁদপুর কোর্টে প্রেরন করে।

কচুয়ার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মহিউদ্দিন জানান, মামলার আসামি হিসেবে সীমা আক্তারের স্বামী নাছির উদ্দিন ও তার বড় ভাবি খালেদা আক্তারকে গ্রেপ্তার করে কোর্টে সোপর্দ করার মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।