৬ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ  সকাল ৬:৫৯  ১৫ই রবিউল-আউয়াল, ১৪৪৩ হিজরী
২২শে অক্টোবর, ২০২১ ইং

ফরিদগঞ্জে গত এক সপ্তাহে ৬ জন করোনায় আক্রান্ত, মাস্ক না পরায় ১৫ জনের অর্থদন্ড

কোভিড-৯০, করোনা ভাইরাসের ২য় ঢেউ ভয়ঙ্কর রূপে আঘাত সর্বত্রে এনেছে। ফরিদগঞ্জে বিভিন্ন এলাকার গত এক সপ্তাহে ১৫ জনের করোনা পরীক্ষায় ৬ জনের পজেটিভ এসেছে। এদের মধ্যে ফরিদগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ ও তার সহধর্মিণীও রয়েছেন।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও প.প কর্মকর্তা মোঃ আশরাফ চৌধুরী জানান, সারাদেশের ন্যায় করোনার ভাইরাসের আক্রান্তের সংখ্যা ফরিদগঞ্জেও বেড়ে চলছে। গত এক সপ্তাহে ফরিদগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে’র মাধ্যমে ১৫ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এদের মধ্যে ৬ জনের নমুনা পজেটিভ আসে। এরা হলেন- ফরিদগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ সহিদ হোসেন (৪৫), তার সহধর্মিনী আফরুজুর নাহার (৩৫), বাঁশারা গ্রামের মাহবুব (৫০), নয়াহাট গ্রামের ইউসুফ খাঁন (২৯), তেলিশাইর গ্রামের আমিনুল হক (৪০) ও সুবিদপুর ইউনয়নের বদরপুর গ্রামের আনোয়ার হোসেন (৬৫)। এছাড়াও সর্বশেষ বৃহস্পতি বার পর্যন্ত ৮ জনের নমুনা পরীক্ষার ফলাফল নেগেটিভ এসেছে। তিনি বলেন, ভয়াবহ এই পরিস্থিতি ঠেকানো একমাত্র উপায় হচ্ছে, জনসচেতনতা এবং প্রতিটি মানুষ মাস্ক ব্যবহার করা নিশ্চিত করতে হবে। বিনা কারণে ঘর থেকে বাহির হওয়া ও জন সমাগম পুরোদমে বন্ধ করতে হবে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার শিউলী হরি জনান, চাঁদপুর জেলা বিপদজনক জোন হিসেবে প্রশাসনের নির্দেশে, ফরিদগঞ্জ উপজেলা প্রশাসন মাস্ক পড়া নিশ্চিত করার জন্য মোবাইল কোর্টসহ নানা পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলা বিভিন্ন এলাকায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্র্যাট শারমিন আক্তার ১৫ জন ব্যক্তিকে মাস্ক না পরায় আর্থিক জরিমানা করেন। এছাড়াও মাইকিং করে, ১৫টি ্ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভার সর্বস্তরের জনগনকে জেলা প্রশাসনের কঠোর নির্দেশনা, রাত ৮ পর ঘর থেকে কেউ না বের হওয়া, সভা, সমাবেশ ও সামাজিক ও ধর্মীয় অনুষ্ঠান বন্ধ রাখাসহ সরকারের ১৮টি নির্দেশনা মেনে চলা ও সচেতন থাকার অনুরোধ করা হচ্ছে।