১৯শে শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ  রাত ১২:৩৯  ২২শে জিলহজ্জ, ১৪৪২ হিজরী
৩রা আগস্ট, ২০২১ ইং

ফরিদগঞ্জে ড্রেজিং করেবালু উত্তোলনে মহোৎসব॥ অভিযোগ পেয়েও নিরব প্রশাসন

নিজস্ব প্রতিনিধি:

ফরিদগঞ্জে ড্রেজিং করেবালু উত্তোলনে মহোৎসব। অভিযোগ পেয়েও নির্বিকার প্রশাসন। এলাকাবাসির খোব।

র্চাদপুরের ফরিদগঞ্জে শীত, কিংবা বসন্ত সব মৌসুমে বিভিন্ন নদ-নদী, ফসলি জমি থেকে অবৈধ ড্রেজার মেশিন বসিয়ে অবাধে চলছে বালু উত্তোলন। এতে নদ-নদীর সাথে ভাঙনের শিকার হচ্ছে শত শত হেক্টর ফসলি জমি, বসত বাড়ি, নদী ও শহর রক্ষা বাঁধ। হুমকিতে রয়েছে উর্বরভূমি৷

অভিযোগ রয়েছে, স্থানীয় প্রশাসন ও ক্ষমতাসীন দলের নেতাকর্মীসহ সংশ্লিষ্ট মহলকে ম্যানেজ করে অনেকটা দাপটের সঙ্গেই লুটের এই মহোৎসবে মেতেছেন প্রভাবশালী বালুদস্যুরা। অনেকটা নির্বিঘ্নে দিনে-রাতে সমানতালে ড্রেজার দিয়ে চলছে ফসলি জমির বুক চিরে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন। এতে করে কৃষি জমি বিনষ্ট হচ্ছে। ফলে কমতে শুরু করেছে খাদ্য উদ্বৃত্ত।

অবৈধভাবে বালু উত্তোলণ করায় প্রতি বছর বর্ষার সময় মানুষের ব্যাপক ক্ষতি হলেও তথাকথিত উন্নয়ন কাজের বুলি তুলে এসব কর্মকাণ্ড চালায় বালু খেকোরা। অবৈধ ড্রেজার মালিকদের বালুগ্রাসী ভূমিকায় অতিষ্ঠ এলাকার সাধারণ মানুষ।

সরেজমিন ঘুরে দেখা যায়, পৌরসভার ১নং চরবসন্ত ইটভাটার পাশে ধুমধাম করে বসানো হয়েছে উন্নত মানের তিনটি ড্রেজিং মেশিন, ১০ ইউনিয়নে চলছে বালি উত্তোলন, সন্তোষপুরসহ বেশ কিছু এলাকাতে ড্রেজিং মেশিন দিয়ে বালু বিক্রি করছেন অসাধু চক্র৷

এ ছাড়া উপজেলার ১৫টি ইউনিয়নে কয়েকটি ইউনিয়ন ব্যাতিত প্রায় সবগুলো ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকায় দাপটের সাথেই চলছে অবৈধ ড্রেজিং মেশিন৷

যানা গেছে গত ১৯ এপ্রিল ০২১ ড্রেজিং এর বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দেওয়ারপর প্রশাসন কোন ব্যবস্তা নেই নি বলে ক্ষোভ প্রকাশ করছে সচেতন মহল৷

ড্রেজার দিয়ে বালু উত্তোলনে পরিবেশের ওপর মারাত্মক প্রভাব ফেলে জানিয়ে স্থানীয় সচেতন নাগরিকরা বলেন, ড্রেজার দিয়ে বালু উত্তোলনে আশপাশের মানুষের বসতবাড়ী ভেঙে যায়। জমির ওপর বালি মাটি পড়ে পলিমাটি ঢেকে যায়। এভাবে এক জায়গার মাটি অন্য জায়গায় সরে গিয়ে অভিযোজন ঘটে। ফলে ওইসব কারনে খাদ্য ঘাটতি দেখা দেয়।

এদিকে উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা যায়, এ মৌসুমে ৯৯৯০ হেক্টর কৃষি জমিতে বোরো ধানের আবাধ করা হয়েছে, ফলে বাম্বার ফলনের সম্ভাবনাও রয়েছে৷ তবে যে ভাবে ড্রেজিং দিয়ে ফসলি জমি নষ্ট করা হচ্ছে, তাতে করে কৃষি আবাধের অনেক ক্ষতির সম্ভাবনা রয়েছে৷

এ বিসয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার শিউলী হরি বলেন, সরকারের পক্ষ থেকে ড্রেজিংয়ের বিষয়ে সম্পূর্ন নিশেদ রয়েছে কিন্তু তারপরও যদি কেউ অবৈধ বাভে ড্রেজিং করে থাকে আমরা খোঁজ নিয়ে প্রয়োজনীয় আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।