১৩ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ  রাত ৩:০৭  ২১শে রবিউস-সানি, ১৪৪৩ হিজরী
২৮শে নভেম্বর, ২০২১ ইং

মেজর সিনহা হত্যা মামলার অভিযোগ গঠন, ৬ আসামির জামিন নামঞ্জুর

সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মো. রাশেদ খান হত্যা মামলার অভিযোগ গঠন করা হয়েছে। আগামী জুলাইয়ের ২৬, ২৭ ও ২৮ তারিখ মামলার সাক্ষীদের সাক্ষ্য গ্রহণ শুরু হবে।

আজ রোববার দুপুর ১টায় শুনানি শেষে কক্সবাজারের জেলা ও দায়রা জজ মোহাম্মদ ইসমাইল এই আদেশ দেন।

একই আদালত আজ অপর আদেশে শুনানি শেষে মামলার প্রধান আসামি পুলিশের বরখাস্ত হওয়া পরিদর্শক লিয়াকত আলী, টেকনাফ থানার সাবেক ওসি প্রদীপ কুমার দাশ, বরখাস্ত উপ-পরিদর্শক নন্দ দুলাল রক্ষিত, কনস্টেবল সাগর দেব, কামাল হোসেন ও আবদুল্লাহ আল মামুনসহ ছয় জনের জামিন আবেদন নামঞ্জুর করেছেন।

পাশাপাশি, মামলার সাত আসামি দায় থেকে অব্যাহতি চেয়ে আদালতে যে আবেদন করেছিলেন তাও শুনানি শেষে নাকচ করে দিয়েছেন বিচারক।

আদালতের দেওয়া তিনটি আদেশের বিষয় দ্য ডেইলি স্টারকে নিশ্চিত করেছেন কক্সবাজার জেলা ও দায়রা জজ আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর ফরিদুল আলম।

তিনি বলেন, ‘সাবেক ওসি প্রদীপ ও এসআই নন্দদুলালের জামিন চেয়ে গত ১০ জুন আদালতে আবেদন জানানো হয়েছিল। কিন্তু, ওই দিন আদালতে নথি উপস্থাপন না হওয়ায় শুনানির দিন ধার্য করা হয়নি।’

তিনি আরও বলেন, ‘গত ১৩ জুন এ নিয়ে আবার আদালতে আবেদন করা হলে আদালত আবেদনটি আমলে নিয়ে শুনানির জন্য ২৭ জুন দিন ধার্য করেন। এ মামলায় অভিযুক্ত কনস্টেবল সাগর দেব গত ২৪ জুন কক্সবাজার জেলা ও দায়রা জজ মোহাম্মদ ইসমাইলের আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিন প্রার্থনা করেন। আদালত তার জামিন আবেদনের বিষয়ে শুনানির জন্য আজকের দিনটি ধার্য করেছিলেন।’

সিনহা হত্যা মামলার (মামলা নং এস, টি-৪৯৩/২১) চার্জ গঠন, জামিন ও মামলার দায় থেকে অব্যাহতির শুনানিতে আসামি পক্ষে আইনজীবী ছিলেন রানা দাশগুপ্ত ও চন্দন দাশসহ ১২ জনের একটি আইনজীবী প্যানেল।

রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন পাবলিক প্রসিকিউটর ফরিদুল আলম। মামলার বাদী পক্ষে ছিলেন মোহাম্মদ মোস্তফা ও সাবেক পিপি এড. মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর।

এ মামলার অভিযুক্ত পুলিশ সদস্য— লিয়াকত আলী, প্রদীপ কুমার দাশ, নন্দ দুলাল রক্ষিত, সাফানুর করিম, কামাল হোসেন, মোহাম্মদ আবদুল্লাহ, লিটন মিয়া, সাগর দেব, মো. শাহাজাহান, মোহাম্মদ রাজীব, মোহাম্মদ আবদুল্লাহ আল মামুন ও রুবেল শর্মা এবং টেকনাফের বাহারছড়ার মারিশবনিয়া গ্রামের নুরুল আমিন, নেজাম উদ্দীন ও আয়াজ উদ্দীনকে কক্সবাজার জেলা কারাগার থেকে আজ আদালতে সশরীরে হাজির করা হয়।

তাদের উপস্থিতিতে শুনানি হয় এবং আদালত আদেশগুলো দেন।

আসামিদের আদালতে হাজির করার জন্য বাড়তি নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হয়। আদালত এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ ও আনসার সদস্য মোতায়েন করা হয়।

গত ১৩ জুন দুপুরে কক্সবাজার জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মোহাম্মদ ইসমাইলের আদালতে ওসি প্রদীপ কুমার দাশের জামিন আবেদন শুনানির কথা থাকলেও তা শুনানির জন্য আজ ২৭ জুন দিন ধার্য করা হয়েছিল।

এ মামলায় অভিযুক্ত ১৫ আসামি কারাগারে রয়েছেন।

আসামি টেকনাফ থানার সাবেক কনস্টেবল সাগর দেব ঘটনার পর থেকে প্রায় সাড়ে ১০ মাস পলাতক থেকে গত ২৪ জুন আত্মসমর্পণ করে আদালতে জামিন আবেদন করেন। তার জামিন আবেদনের ওপর শুনানির তারিখও ধার্য ছিল আজ।