১৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ  রাত ১২:০০  ৮ই জমাদিউল আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরি
৩রা ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

ফেসবুকে মিথ্যা তথ্যে পুলিশ কর্মকর্তাকে হেয় করার অপচেষ্টা

নিজস্ব প্রতিনিধি:

নারায়ণগঞ্জে বিএনপির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপনের সময় শাওন নামে এক যুবকের মৃত্যু নিয়ে গুজবে নেমেছে একটি চক্র। এই গুজবের শিকার হয়েছেন চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও পৌর মেয়র যুদ্ধাহত বীরমুক্তিযোদ্ধা আবুল খায়ের পাটওয়ারীর ছেলে স্পেশাল ব্রাঞ্চে কর্মরত অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রাহুল পাটওয়ারী ।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পুলিশের বেশ কিছু ছবি ভাইরাল করে তারা। গুজবকারিরা “নারায়ণগঞ্জ জেলা গোয়েন্দা শাখার সহকারি পুলিশ সুপার রাহুল পাটওয়ারীর গুলিতে যুবদল নেতা শাওন নিহত হন মর্মে পোস্ট করছেন”।
এ বিষয়ে অনুসন্ধানে জানা যায়, পুলিশের স্পেশাল ব্রাঞ্চে (এস বি) কর্মরত অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রাহুল পাটওয়ারী গত ১৮ই আগষ্ট থেকে ভারতের চেন্নাইতে অবস্থান করছেন। তাঁর বাবা ফরিদগঞ্জ পৌরসভার মেয়র ও যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধা আবুল খায়ের পাটওয়ারীর উন্নত চিকিৎসার জন্য বাবা ও মাকে নিয়ে চেন্নাইতে আছেন তিনি। গত ৩১ আগস্ট রাহুল পাটওয়ারীর বাবার গলায় ক্যান্সারের অপারেশন চেন্নাইয়ের অ্যাপোলো প্রোটন ক্যান্সার হাসপাতালে সম্পন্ন হয়। এখন পর্যন্ত তিনি পরিবার নিয়ে সেখানেই আছেন।

অথচ গুজব কারীরা অপ্রাসঙ্গিক একটা ছবি তার বলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দিয়ে পুলিশ বাহিনী ও রাহুল পাটওয়ারী এমনকি একজন মুক্তিযোদ্ধাকেও হেও প্রতিপন্ন করেছেন।

এ ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়ে রাহুল পাটওয়ারী তার ব্যক্তিগত ফেসবুক একাউন্টে ৩ সেপ্টেম্বর শনিবার পোস্ট করেন, “গত ১লা সেপ্টেম্বর নারয়ণগঞ্জের একটি ঘটনায় সারাদেশ ব্যাপী বিভিন্ন ব্যাক্তিগত প্রোফাইল এবং বিভিন্ন ফেইসবুক ফেইজ, ফেইসবুক গ্রুপ হতে একটি দলের কর্মী, সমর্থক এবং বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ আমার নাম ব্যবহার করে মিথ্যা প্রচারণায় লিপ্ত থেকে মানুষকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করছে।

এর মধ্য দিয়ে তারা শুধু আমার বিরুদ্ধেই মিথ্যাচার করছে না, ‘তারা বাংলাদেশ পুলিশের বিরুদ্ধেও মিথ্যাচারে লিপ্ত আছে। আপনাদের জ্ঞাতার্থে জানাচ্ছি যে বাবা-মায়ের চিকিৎসার জন্য ছুটি নিয়ে গত ১৮ আগস্ট হতে আমি ভারতে চেন্নাইতে রয়েছি। চিকিৎসা শেষ করে দেশে ফিরতে আরো ৩/৪ দিন সময় লাগবে। মিথ্যা অপপ্রচারকারীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

এ ব্যাপারে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রাহুল পাটওয়ারীর সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, ”আমি আমার পরিবারসহ ১৮ আগষ্ট থেকে ভারতে অবস্থান করছি। সেখানে ১ সেপ্টেম্বরের ঘটনার বিষয়ে আমিতো কিছুই জানি না। একটি গোষ্ঠি আমার নাম ব্যবহার করে এই ধরনের গুজব রটাচ্ছে। আমি দেশে ফিরেই তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।”

রাহুল পাটওয়ারী এর আগে ডিবিতে থাকাকালিন সময় জীবন বাজি রেখে অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারে গিয়ে সন্ত্রাসীদের গুলিতে মারাত্মক আহত হন, এই সাহসিকতার জন্য তিনি পিপিএম পদকে ভূষিত হন।